মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

পর্যটন ও ঐতিহ্য

শিরোনাম : রূপসী দেবহাটা ম্যানগ্রোভ পর্যটন কেন্দ্র- দেবহাটা উপজেলার একটি অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র। সুন্দরবনের আদলে তৈরী এই ম্যানগ্রোভ ফরেষ্টটি  উপজেলা পরিষদ এবং উপজেলা প্রশাসনের যৌথ প্রচেষ্টার ফসল। এখানে সুন্দর বন থেকে বিভিন্ন প্রকৃতির ও বিভিন্ন জাতের ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছ এনে লাগানো হয়েছে এবং কৃত্রিমভাবে বন সৃষ্টি করা হয়েছে।

  • অবস্থান : ইছামতি নদীর পাড়ে প্রায় ৬০ একর জমির উপর এই ম্যানগ্রোভ ফরেষ্ট বিস্তৃত। এটা পর্যটন কেন্দ্রে রূপান্তরিত করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসক, সাতক্ষীরা মহোদয়ের সহযোগিতায় এটিকে পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে এবং পরিপূর্ণভাবে পর্যটন কেন্দ্রের সকল সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য, দূর দূরান্ত থেকে আসা পর্যটক ও প্রকৃতি প্রেমীদের  বিনোদনের জন্য এবং শিশুদের বিনোদনের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রয়োজনীয় আর্থিক সহযোগিতার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। এটিকে পূর্ণ পর্যটন কেন্দ্রে রূপান্তরিত করতে পারলে এখান থেকে প্রচুর পারিমাণে সরকারি রাজস্ব আদায় হবে এবং অনেক মানুষের কর্মসংস্থানও হবে।
  • কিভাবে আসবেন : সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ রোডের সখিপুর মোড়ে নেমে ডান দিকের রাস্তা দিয়ে সোজা দেবহাটা থানা মোড়ে নামতে হবে। এখান থেকে মোটর সাইকেল অথবা ইঞ্জিন ভ্যান যোগে প্রায় ০৫ কিলোমিটার দূরে আপনি রূপসী দেবহাটা ম্যানগ্রোভ পর্যটন কেন্দ্রে যেতে পারবেন।

যাতায়াত ব্যবস্থা : সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ রোডের সখিপুর মোড় থেকে দেবহাটা থানা মোড় পর্যন্ত সম্পূর্ণ পিচঢালা রাস্তা।  থানা মোড় থেকে ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট পর্যন্ত কাঁচা রাস্তা। তবে খুব শ্রীঘ্রই এ রাস্তাটুকু পাকা রাস্তায় পরিণত করার কাজ চলছে।

শিরোনাম : ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত চিহ্নিত ইছামতি নদীর অপরূপ সৌন্দর্য। পড়ন্ত বিকালে নদীর ধারে বসে সূর্যাস্তের দৃশ্য এবং পানিতে সূর্যের আলোক রশ্মি যে অপরূপ সৌন্দর্য সৃষ্টি করে তা দেখার জন্য বার বার মন ছুটে যায়।

  • অবস্থান : দেবহাটা থানার (পুলিশ স্টেশন) পশ্চিম পাশ ঘেঁষে ইছামতি নদী প্রবাহিত। নদীর অপজিটে ভারতের সীমান্ত।
  • এখানে কিভাবে আসবেন : সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ রোডের সখিপুর মোড় থেকে ডানদিকের রাস্তাধরে সোজা দেবহাটা থানা মোড়। এখানে নেমে থানার পিছন দিয়ে আপনি নদীর পাড়ে যেতে পারবেন। খুব সহজেই নদীর পাড়ে দাড়িয়ে পালতোলা নৌকা, জেলেদের মাছ ধরার দৃশ্য এবং ভারতের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যও উপভোগ করা  যায়।
  • যাতায়াত ব্যবস্থা : সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ রোডের সখিপুর মোড় থেকে দেবহাটা থানা মোড় পর্যন্ত সম্পূর্ণ পিচঢালা রাস্তা। এছাড়া নদীর পাড়েও রয়েছে পাকা রাস্তা, ইটের সোলিং করা  রাস্তা এবং শুকনা বেলে মাটির কাঁচা রাস্তা।